• বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭  নিউইয়র্ক সময়: ০১:৪৫    ঢাকা সময়: ১১:৪৫

উচ্চশিক্ষা গ্রহণকারীদের জন্য পর্যাপ্ত আসন রয়েছে

দেশকণ্ঠ প্রতিবেদন : উচ্চশিক্ষা গ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের জন্য দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কোনও আসন সংকট নেই বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)।
 
রবিবার (৩১ জানুয়ারি) প্রকাশিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথায় জানায় প্রতিষ্ঠানটি। 
 
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সরকারি-বেসরকারিসহ দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মিলিয়ে প্রায় ১৩ লাখ ২০ হাজার আসন রয়েছে। 
 
ইউজিসির সদস্য অধ্যাপক মুহাম্মদ আলমগীর বলেন, "দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও অনুমোদিত কলেজগুলিতে আসনের কোনো অভাব হবে না।"
 
তিনি আরও জানান, "এ বছর উচ্চমাধ্যমিক (এইচএসসি) এবং সমমানের পরীক্ষা সম্পন্ন প্রায় সকল শিক্ষার্থীরই উচ্চ শিক্ষার জন্য প্রবেশাধিকার থাকবে। তবে তাদের পছন্দের প্রতিষ্ঠান এবং বিষয় নির্বাচনের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের মধ্যে তীব্র প্রতিযোগিতা থাকবে।"
 
২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে, ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়সহ ছয়টি প্রধান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ গুচ্ছভাবে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
 
ইউজিসির দেওয়া তথ্যানুযায়ী, এ ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে সর্বমোট ১৩ লাখ ২০ হাজারটি আসন রয়েছে। যার মধ্যে ৪৬টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬০ হাজার; ১০৭টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২ লাখ ৩ হাজার ৬৭৫টি এবং উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ৭৭ হাজার ৭৫৬টি আসন রয়েছে।
 
এছাড়া জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্হ ২,২৬৫টি কলেজে ৮ লক্ষ ৭২ হাজার ৮১৫টি; ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্হ ৭টি কলেজে ২৩ হাজার ৩৩০টি; চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্হ ৪টি কলেজে ২৯০টি আসন রয়েছে।
 
অপরদিকে, ৭৩টি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজের অধীনে ১০হাজার ৫০০টি এবং ৫টি প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ৭২০টি আসন সংরক্ষিত আছে।
 
এছাড়াও ইসলামি উচ্চশিক্ষার গ্রহণের ৪৭৫টি প্রতিষ্ঠানে ৬০ হাজারটি; ২টি কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রায় ৪৪০টি; ৬টি টেক্সটাইল কলেজের অধীনে ৭২০টি ; ১০৫টি নার্সিং ও প্রসূতিবিদ্যা প্রতিষ্ঠানের অধীনে ৫ হাজার ৬০০টি; ১৪টি মেরিন ও অ্যারোনটিক্যাল কলেজের অধীনে ৬৫৪টি এবং অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্হ প্রায় ১৫০টি কলেজে আরও ৩হাজার ৫০০টি আসন রয়েছে।
 
মুহাম্মদ আলমগীর জানান, "প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভর্তি ব্যবস্থা সম্পর্কে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এই সপ্তাহে ঘোষণা করা হবে।" 
 
শনিবার (৩০ জানুয়ারি) উচ্চমাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়। কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে পরীক্ষা ছাড়াই শতভাগ পাসের ভিত্তিতে এ ফলাফল প্রকাশ করা হয়।
 
২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে উচ্চমাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষায় নয়টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড থেকে ১১ লক্ষ ৪৫ হাজার ৩২৯ জন্য, মাদ্রাসা বোর্ড থেকে ৮৮ হাজার ৩০২ জন এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ড থেকে ১ লক্ষ ৩৩ হাজার ৭৪৬জন শিক্ষার্থী পাস করেন।
দেশকণ্ঠ/অআ

AD by Deshkontho
AD by Deshkontho
আরও সংবাদ
×

আমাদের কথা: ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী অনলাইন মিডিয়া। গতি ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে মানুষও তথ্যানুসন্ধানে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে অনলাইন। যতই দিন যাচ্ছে, অনলাইন মিডিয়ার সঙ্গে মানুষের সর্ম্পক তত নিবিড় হচ্ছে। দেশ, রাষ্ট্র, সীমান্ত, স্থল-জল, আকাশপথ ছাড়িয়ে যেকোনো স্থান থেকে ‘অনলাইন মিডিয়া’ এখন আর আলাদা কিছু নয়। পৃথিবীর যে প্রান্তে যাই ঘটুক, তা আর অজানা থাকছে না। বলা যায় অনলাইন নেটওয়ার্ক এক অবিচ্ছিন্ন মিডিয়া ভুবন গড়ে তুলে এগিয়ে নিচ্ছে মানব সভ্যতার জয়যাত্রাকে। আমরা সেই পথের সারথি হতে চাই। ‘দেশকণ্ঠ’ সংবাদ পরিবেশনে পেশাদারিত্বকে সমধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে বদ্ধপরির। আমাদের সংবাদের প্রধান ফোকাস পয়েন্ট সারাবিশ্বের বাঙালির যাপিত জীবনের চালচিত্র। বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলের সংবাদও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা একঝাক ঋদ্ধ মিডিয়া প্রতিনিধি যুক্ত থাকছি দেশকণ্ঠের সঙ্গে।