• শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭  নিউইয়র্ক সময়: ০১:০২    ঢাকা সময়: ১১:০২

কাচের ভেতর সবুজ বাগান

দেশকণ্ঠ প্রতিবেদন : যেভাবে তৈরি করবেন
টেরারিয়াম তৈরির সব উপকরণই পেয়ে জাবেন হাতের নাগালে। পাত্র হিসেবে বেছে নিন কাচের ফিশ বোল, জার বা বড় অ্যাকুয়ারিয়ামের পাত্র। চাইলে নষ্ট বাল্বের মধ্যেও সাজিয়ে ফেলতে পারেন বাগান।
 
এরপর লাগবে কিছু পাথরের টুকরো, কাঠ-কয়লা বা চারকোল, নুড়ি, ঝুরো বালি, পাথর, মাটি, পুরোনো দেয়ালে জন্মানো মস, ঘরের ভিতরে জন্মায় এমন তিন-চার প্রকারের গাছ।
 
টেরারিয়ামের জন্য বিশেষভাবে তৈরি করতে হবে মাটি। কারণ এই মাটির কয়েকটি স্তর থাকে। মাটি আর্দ্রতা ধরে রাখতে পারবে এমন উপাদান থাকে। তার সঙ্গে মাটির মধ্য দিয়ে যেন বাতাস চলাচল করতে পারে, জমাট না বেধে যায় আবার অতিরিক্ত পানিও বেরিয়ে যেতে পারে, সেই ব্যবস্থাও করতে হবে।
 
প্রথমে কাচের পাত্রের নিচে ছোট ছোট পাথরের টুকরো দিয়ে দেড় ইঞ্চি পুরু স্তর বানাতে হবে। এরপর দিতে হবে কাঠ-কয়লার স্তর। এই দুটি স্তর অতিরিক্ত পানি শোষন করে নেবে। একই সঙ্গে কাঠ-কয়লা বাতাস চলাচলে সহায়তা করবে।
 
পাথর ও কাঠ-কয়লার স্তরের ওপর ব্যবহার করতে হবে মাটির স্তর। তবে এ মাটির স্তরের পুরুত্ব নির্ভর করবে কী ধরনের গাছ লাগাবেন তার ওপর।
 
এবার পছন্দ মতো তিন-চার প্রকারের গাছ লাগিয়ে নুড়ি-পাথর দিয়ে সাজিয়ে নিন ইচ্ছে মতো। গাছ পছন্দের ক্ষেত্রে সাকুলেন্ট জাতীয় (যেসকল গাছ কাণ্ড, শাখা-প্রশাখা, পাতা বা মূল পানি জমিয়ে রাখে) গাছ নির্বাচন করা যেতে পারে। এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের ফার্ন ও মস রাখা যেতে পারে।
 
জেনে নিন
 
সৌন্দর্য বাড়ানোর জন্য প্লাস্টিকের ছোট খেলনা রাখতে পারেন।
টেরারিয়াম রোদে রাখা যায় না।
টেরারিয়ামে প্রয়োজন অনুযায়ী পানি স্প্রে করতে হবে। অতিরিক্ত পানি দেওয়া যাবে না
অতিরিক্ত আর্দ্রতার কারণে কাচের গায়ে জলীয় বাষ্প জমলে ওপরের ঢাকনাটা খুলে দিতে হবে।
বিভিন্ন পোকার সংক্রমণ থেকে গাছকে বাঁচাতে কীটনাশক এবং ছত্রাকনাশক ব্যবহার করতে হবে।
দেশকণ্ঠ/অআ

AD by Deshkontho
AD by Deshkontho
আরও সংবাদ
×

আমাদের কথা: ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী অনলাইন মিডিয়া। গতি ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে মানুষও তথ্যানুসন্ধানে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে অনলাইন। যতই দিন যাচ্ছে, অনলাইন মিডিয়ার সঙ্গে মানুষের সর্ম্পক তত নিবিড় হচ্ছে। দেশ, রাষ্ট্র, সীমান্ত, স্থল-জল, আকাশপথ ছাড়িয়ে যেকোনো স্থান থেকে ‘অনলাইন মিডিয়া’ এখন আর আলাদা কিছু নয়। পৃথিবীর যে প্রান্তে যাই ঘটুক, তা আর অজানা থাকছে না। বলা যায় অনলাইন নেটওয়ার্ক এক অবিচ্ছিন্ন মিডিয়া ভুবন গড়ে তুলে এগিয়ে নিচ্ছে মানব সভ্যতার জয়যাত্রাকে। আমরা সেই পথের সারথি হতে চাই। ‘দেশকণ্ঠ’ সংবাদ পরিবেশনে পেশাদারিত্বকে সমধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে বদ্ধপরির। আমাদের সংবাদের প্রধান ফোকাস পয়েন্ট সারাবিশ্বের বাঙালির যাপিত জীবনের চালচিত্র। বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলের সংবাদও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা একঝাক ঋদ্ধ মিডিয়া প্রতিনিধি যুক্ত থাকছি দেশকণ্ঠের সঙ্গে।