• শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ৩ বৈশাখ ১৪২৮  নিউইয়র্ক সময়: ২২:১৪    ঢাকা সময়: ০৮:১৪

লকডাউনে হোটেল বন্ধ খাওয়া নিয়ে বিপাকে ট্রাক চালক ও হেলপার

দেশকণ্ঠ প্রতিবেদন :  লকডাউন থাকলেও দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে দু’দেশের মাঝে পণ্য আমদানি-রফতানি বাণিজ্যসহ বন্দরের সব কার্যক্রম চালু রয়েছে। ফলে পণ্য নিয়ে আসছে ট্রাক। কিন্তু হোটেল খোলা না থাকায় খাওয়া নিয়ে বিপাকে পড়েছেন ট্রাকের চালক ও হেলপাররা। 
 
করোনা সংক্রামণ রোধে লকডাউনে হিলিতে বন্ধ রয়েছে গণপরিবহন চলাচল। ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান ছাড়া বাকি সব দোকান বন্ধ রয়েছে। সকাল ৮টা থেকে মুদিখানা, কাঁচাবাজার ও হোটেল রেষ্টরেন্টে খোলা থাকলেও বিকাল ৪টার পর থেকে এসব বন্ধ হয়ে যায়। একইভাবে হোটেলগুলোতে বসে খাওয়ার ব্যবস্থা বন্ধ রয়েছে। এতে বিপাকে পড়তে হচ্ছে পণ্য পরিবহনের কাজে নিয়োজিত ট্রাকের চালক ও হেলপারদের। 
 
হিলি স্থলবন্দরে পণ্য নিতে আসা ট্রাক চালক মনোয়ার হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘পণ্য পরিবহনের জন্য আমাদেরকে বাংলাদেশের সব জায়গায় ট্রাক নিয়ে যেতে হয়। আজকে ঠাকুরগাঁও থেকে হিলি বন্দরে পণ্য নিতে আসছি। সকালে ও দুপুরে হোটেল থেকে পার্সেল নিয়ে খাই। কিন্তু সন্ধ্যার পর হোটেলগুলো সব বন্ধ থাকে। এতে করে খাবার না পেয়ে আমাদের বিপাকে পড়তে হয়। গতকাল রাতে আমি আমার হেলপার বিস্কুট খেয়ে কোনোরকমে রাত কাটিয়েছি। বন্দরের আশেপাশে হোটেলগুলো খোলা থাকলে রাতের খাবার খেয়ে চলে যেতে পারতাম আমরা। আমাদের মতো অনেক চালক ও হেলপার পণ্য নিতে এসে না খেয়ে থাকতে হচ্ছে।’
 
হাকিমপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মাদ নূর-এ আলম বলেন, করোনার সংক্রামণ বেড়ে যাওয়ায় দেশে দ্বিতীয় বারের মতো লকডাউন চলছে। এতে সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। এছাড়া সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত মুদিখানা কাঁচাবাজার ও খাবার হোটেল খোলা থাকবে। ট্রাক ড্রাইভারদের প্রয়োজনে রাতের খাবার কিনে নিয়ে গাড়িতে রাখতে হবে।
 
দেশকণ্ঠ/অআ

  মন্তব্য করুন
AD by Deshkontho
AD by Deshkontho
×

আমাদের কথা: ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী অনলাইন মিডিয়া। গতি ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে মানুষও তথ্যানুসন্ধানে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে অনলাইন। যতই দিন যাচ্ছে, অনলাইন মিডিয়ার সঙ্গে মানুষের সর্ম্পক তত নিবিড় হচ্ছে। দেশ, রাষ্ট্র, সীমান্ত, স্থল-জল, আকাশপথ ছাড়িয়ে যেকোনো স্থান থেকে ‘অনলাইন মিডিয়া’ এখন আর আলাদা কিছু নয়। পৃথিবীর যে প্রান্তে যাই ঘটুক, তা আর অজানা থাকছে না। বলা যায় অনলাইন নেটওয়ার্ক এক অবিচ্ছিন্ন মিডিয়া ভুবন গড়ে তুলে এগিয়ে নিচ্ছে মানব সভ্যতার জয়যাত্রাকে। আমরা সেই পথের সারথি হতে চাই। ‘দেশকণ্ঠ’ সংবাদ পরিবেশনে পেশাদারিত্বকে সমধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে বদ্ধপরির। আমাদের সংবাদের প্রধান ফোকাস পয়েন্ট সারাবিশ্বের বাঙালির যাপিত জীবনের চালচিত্র। বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলের সংবাদও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা একঝাক ঋদ্ধ মিডিয়া প্রতিনিধি যুক্ত থাকছি দেশকণ্ঠের সঙ্গে।