• শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ২৪ বৈশাখ ১৪২৮  নিউইয়র্ক সময়: ০৬:৫০    ঢাকা সময়: ১৬:৫০

অক্সিজেন সংকটে কর্নাটকে মারা গেল ২৪ জন

দেশকণ্ঠ প্রতিবেদন :  অক্সিজেন রপ্তানিকারী দেশ ভারতের বর্তমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে অক্সিজেন সংকট ইতোমধ্যে চরমে পৌঁছেছে। অক্সিজেনের স্বল্পতা হাসপাতালগুলোতে দিন-দিন মহা সংকটে রূপ নিচ্ছে। গত ১০ দিনে অক্সিজেন স্বল্পতার কারণে দিল্লির তিনটি হাসপাতালে মোট ৬২ জন করোনাভাইরাসের রোগী মারা যায়। কিন্তু এবার দক্ষিণ ভারতের কর্নাটকের একটি সরকারি হাসপাতালে অক্সিজেন শেষ হয়ে যাবার কারণে ২৪ জন রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।
 
প্রাদেশিক রাজধানী বেঙ্গালুরু থেকে ১৮০ কিলোমিটার দূরের চামারাজানগর জেলার সদর হাসপাতালে অক্সিজেন শেষ হয়ে গেলে এই ঘটনা ঘটে। হাসপাতালের কয়েকজন কর্মকর্তা জানান, নিহতদের মধ্যে কয়েকজন লাইফ সাপোর্টে ছিলেন। কর্ণাটকের স্বাস্থ্যমন্ত্রী কে সুধাকর এই ঘটনাকে দুঃখ প্রকাশ করেন। কিন্তু সকল মৃত্যুই অক্সিজেন স্বল্পতার কারণে হয়েছে এমনটা স্বীকার করতে নারাজ তিনি। ঘটানাস্থান পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করবেন বলেও জানান এই মন্ত্রী।
 
তবে এই ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে দেরি করেননি ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের প্রধান রাহুল গান্ধী। তিনি টুইটারে কেন্দ্রীয় সরকারের চরম সমালোচনা করে বলেন, “আমি নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি। হাসপাতালের নিহতরা কি মারা গেছেন, নাকি তাদের হত্যা করা হয়েছে? আর কত কষ্ট সহ্য করার পর শাসনতন্ত্র জেগে উঠবে?”
 
ভারতের হাসপাতালগুলোর অক্সিজেন সংকটের তীব্রতা প্রকাশ্যে আসে গত ১০ দিনে দিল্লির তিনটি হাসপাতালে ৬২ জনের মৃত্যুর পর। শনিবার (১ মে) সকালে দিল্লির অন্যতম আধুনিক বাতরা হাসপাতালে অক্সিজেন সংকটের কারণে মারা যায় ১২ জন রোগী। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, মাত্র ১ ঘণ্টা ২০ মিনিট হাসপাতালটিতে অক্সিজেন সরবরাহ না থাকায় ১২ জন করোনা রোগী প্রাণ হারায়। মৃতদের অধিকাংশই লাইফ সাপোর্ট ছিলেন।
 
এছাড়া শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) মধ্যরাতে দিল্লির জয়পুর গোল্ডেন হাসপাতালে অক্সিজেন সংকটের কারণে ২৫ জন রোগী প্রাণ হারায়। অপরদিকে, শুক্রবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দিল্লির স্বনামধন্য স্যার গঙ্গা রাম হাসপাতালে মারা যায় আরও ২৫ জন। উল্লেখ্য, গত ২৮ এপ্রিল মহারাষ্ট্রের সরকারি জাকির হোসেন হাসপাতালে অক্সিজেন সরবরাহ লাইনের লিকেজের কারণে ২৪ জন রোগী মারা যায়।
দেশকণ্ঠ/অআ

  মন্তব্য করুন
AD by Deshkontho
AD by Deshkontho
আরও সংবাদ
×

আমাদের কথা: ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী অনলাইন মিডিয়া। গতি ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে মানুষও তথ্যানুসন্ধানে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে অনলাইন। যতই দিন যাচ্ছে, অনলাইন মিডিয়ার সঙ্গে মানুষের সর্ম্পক তত নিবিড় হচ্ছে। দেশ, রাষ্ট্র, সীমান্ত, স্থল-জল, আকাশপথ ছাড়িয়ে যেকোনো স্থান থেকে ‘অনলাইন মিডিয়া’ এখন আর আলাদা কিছু নয়। পৃথিবীর যে প্রান্তে যাই ঘটুক, তা আর অজানা থাকছে না। বলা যায় অনলাইন নেটওয়ার্ক এক অবিচ্ছিন্ন মিডিয়া ভুবন গড়ে তুলে এগিয়ে নিচ্ছে মানব সভ্যতার জয়যাত্রাকে। আমরা সেই পথের সারথি হতে চাই। ‘দেশকণ্ঠ’ সংবাদ পরিবেশনে পেশাদারিত্বকে সমধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে বদ্ধপরির। আমাদের সংবাদের প্রধান ফোকাস পয়েন্ট সারাবিশ্বের বাঙালির যাপিত জীবনের চালচিত্র। বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলের সংবাদও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা একঝাক ঋদ্ধ মিডিয়া প্রতিনিধি যুক্ত থাকছি দেশকণ্ঠের সঙ্গে।