• শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ১১ আষাঢ় ১৪২৮  নিউইয়র্ক সময়: ০৬:১৫    ঢাকা সময়: ১৬:১৫

ইয়াসের তাণ্ডব কোমর পানিতে জুম্মার নামাজ আদায়

দেশকণ্ঠ প্রতিবেদন :  ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে সৃষ্ট জলোচ্ছাসে সাতক্ষীরার উপকূলের বিভিন্ন উপজেলা জলমগ্ন হয়ে পড়েছে। এতে ডুবে গেছে অনেক ঘরবাড়িসহ স্থানীয় মসজিদগুলো। ফলে মসজিদে নামাজ আদায় করতে গিয়ে বিপাকে পড়েছেন মুসল্লিরা। শুক্রবার (২৮ মে) জুম্মার নামাজও অনেককে কোমর পানিতে দাঁড়িয়ে আদায় করতে দেখা গেছে।  জানা গেছে, জেলার শ্যামনগর, আশাশুনি, কালিগঞ্জ ও দেবহাটা উপজেলায় বাঁধ ভেঙে পানি উপচে লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। 
 
সরেজমিনে দেখা যায়, আশাশুনির উপজেলার প্রতাপনগর ইউনিয়নের ৩০ হাজার মানুষ এখনও পানিবন্দি। ফলে চারিদিকে কপোতাক্ষ ও খোলপেটুয়া নদীর জোয়ার-ভাটার লোনা পানির স্রোত বয়ে চলেছে। প্রতিটি মানুষের ঘর দুয়ারে পানি আর পানি। বাদ পড়েনি ধর্মীয় উপাসনালয় মসজিদ-মন্দির, স্কুল, মাদ্রাসা, কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। উপজেলায় শুক্রবার প্রতাপনগর ৫ নম্বর ওয়ার্ড হালদার বাড়ি জামে মসজিদে কোমর পানিতে দাঁড়িয়ে জুম্মার নামায আদায় করেছেন এলাকার লোকজন। 
 
স্থানীয় বাসিন্দা মাসুম বিল্লাহ বলেন, অস্বাভাবিক পানির তোড়ে ভেসে গেছে মৎস্য ঘের। গত বছরের আম্পানের ক্ষয়ক্ষতির রেশ এখন কাটেনি। এর মধ্যেই এ অঞ্চলের মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ বেড়িবাঁধ ভেঙে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। ফলে মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছে। নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে উপকূলীয় অঞ্চলের প্লাবিত এলাকার মানুষেরা।
 
মাসুম আরও বলেন, "আমদের ঘরের মধ্যে কোমর পানি, মসজিদেও কোমর পানি। তাই মসজিদে নামাজ আদায় করতে আইছি। আগে তাও পানি আসলি ভাটায় সরি যেত। এবার তাও যাচ্ছে না। কী করি যে আমরা বসবাস করবো জানিনে। দুই মাস যাতি না যাতি আবার ভাসতিছি আমরা।"  তিনি আরও বলেন, বুধবার (২৬ মে) ঘুর্ণিঝড় ইয়াস এর প্রভাবে উপকূলীয় প্রতাপনগর ইউনিয়নের মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ বেড়িবাঁধের নয়টি পয়েন্ট ভেঙে বিস্তীর্ণ অঞ্চল প্লাবিত হয়ে জোয়ার-ভাটা চলছে। বিগত দিনের তুলনায় এবারের ঘূর্ণিঝড়ে নদীর পানিতে স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়েও প্রায় দুই-তিন ফুট বেশি উচ্চতা দেখা যাচ্ছে। এদিকে লবণাক্ত পানির তীব্র স্রোতের কারণে অনেকের বসতবাড়ি বিধ্বস্ত হয়ে গেছে
দেশকণ্ঠ/অআ

  মন্তব্য করুন
AD by Deshkontho
AD by Deshkontho
×

আমাদের কথা: ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী অনলাইন মিডিয়া। গতি ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে মানুষও তথ্যানুসন্ধানে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে অনলাইন। যতই দিন যাচ্ছে, অনলাইন মিডিয়ার সঙ্গে মানুষের সর্ম্পক তত নিবিড় হচ্ছে। দেশ, রাষ্ট্র, সীমান্ত, স্থল-জল, আকাশপথ ছাড়িয়ে যেকোনো স্থান থেকে ‘অনলাইন মিডিয়া’ এখন আর আলাদা কিছু নয়। পৃথিবীর যে প্রান্তে যাই ঘটুক, তা আর অজানা থাকছে না। বলা যায় অনলাইন নেটওয়ার্ক এক অবিচ্ছিন্ন মিডিয়া ভুবন গড়ে তুলে এগিয়ে নিচ্ছে মানব সভ্যতার জয়যাত্রাকে। আমরা সেই পথের সারথি হতে চাই। ‘দেশকণ্ঠ’ সংবাদ পরিবেশনে পেশাদারিত্বকে সমধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে বদ্ধপরির। আমাদের সংবাদের প্রধান ফোকাস পয়েন্ট সারাবিশ্বের বাঙালির যাপিত জীবনের চালচিত্র। বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলের সংবাদও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা একঝাক ঋদ্ধ মিডিয়া প্রতিনিধি যুক্ত থাকছি দেশকণ্ঠের সঙ্গে।