• শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ১১ আষাঢ় ১৪২৮  নিউইয়র্ক সময়: ০৬:৪৯    ঢাকা সময়: ১৬:৪৯

একসঙ্গে ১০ সন্তানের জন্ম দিয়ে নতুন বিশ্বরেকর্ড

দেশকণ্ঠ প্রতিবেদন :  একসঙ্গে ১০টি বাচ্চা প্রসব করে নতুন বিশ্বরেকর্ড গড়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার গোসিয়াম থমারা সিথোল নামে এক নারী। সোমবার (৭ জুন) রাতে দেশটির প্রশাসনিক রাজধানী প্রিটোরিয়ার একটি হাসপাতালে ৩৭ বছর বয়সী গোসিয়াম থামারা সিথোল একসঙ্গে ১০ সন্তানের জন্ম দেন, যার মধ্যে ৭টি ছেলে এবং ৩টি মেয়ে। 
 
এর আগে গত মে মাসে একসঙ্গে ৯টি সন্তান প্রসব করে বিশ্ব রেকর্ড তৈরি করেন মালির নারী হালিমা সিসির। নিউ ইয়র্ক পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হাসপাতালের চিকিৎসকরা আগে থেকেই নিশ্চিত ছিলেন গোসিয়ামের গর্ভে একাধিক সন্তান রয়েছে। প্রাথমিকভাবে সবাই ভেবেছিল তার ৮টি সন্তান হবে। 
 
গোসিয়ামের স্বামী তেভো সোসোটেসি গণমাধ্যমকে জানান, তার স্ত্রী প্রিটোরিয়ায় একটি হাসপাতালে চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে ছিল। বিকালে হঠাৎ করেই ব্যথা অনুভব করলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরবর্তীতে তিনজন জেনারেল চিকিৎসকের সহযোগিতায় দুজন বিশেষজ্ঞ গাইনি চিকিৎসক সিজারের মাধ্যমে একে একে ১০টি বাচ্চা বের করে আনেন। 
 
এদিকে, ১০ সন্তানের (নতুন বিশ্বরেকর্ডের) জন্ম দেয়া গোসিয়াম বলেন, "প্রাথমিকভাবে চিকিৎসকরা জমজ সন্তানের কথা বলছিলেন। কিন্তু দশটি বাচ্চা আমার গর্ভে ৩৬ সপ্তাহ কিভাবে ছিল তা অকল্পনীয়। আমি অসুস্থ ছিলাম, এটা আমার জন্য কঠিন একটা সময় ছিল। আমি কেবল ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করি যেন আমার সব বাচ্চা সুস্থ থাকে। আমি ও আমার সন্তানরা এখন সম্পূর্ণ সুস্থ। আমি চিকিৎসকদের ধন্যবাদ জানাই।" 
 
প্রিটোরিয়া মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের গাইনি বিভাগের উপ-প্রধান অধ্যাপক ডিনি মাওলা বলেন, "গিসোয়ানের ১০ সন্তান জন্ম দেওয়ার ঘটনা বিরল এবং সাধারণত ঈশ্বরের সহযোগিতা ছাড়া এমন ঘটনা পৃথিবীতে বিরল।"  তিনি আরও বলেন, "১০টি শিশুকে আগামী কয়েক মাস ইনকিউবেটরে রেখে ওজন ঠিক করতে হবে। কারণ বাচ্চাগুলো গর্ভাবস্থায় বেশ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় ছিল।" 
 
যদিও গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস এখনো এটিকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্বরেকর্ডের স্বীকৃতি দেয়নি। মঙ্গলবার (৮ জুন) গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের একজন মুখপাত্র জানান, "আমরা গোসিয়াম সিথোলের পরিবারকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। তবে আমরা এখনও এটিকে রেকর্ড হিসাবে যাচাই করতে করিনি, কারণ মা এবং বাচ্চাদের সুস্থতাই আমাদের প্রথম মূল অগ্রাধিকার। একজন বিশেষজ্ঞ পরামর্শদাতার পাশাপাশি আমাদের রেকর্ড দলও বিষয়টি খতিয়ে দেখছে"। উল্লেখ্য, ছয় বছর আগে গোসিয়াম যমজ সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন।
দেশকণ্ঠ/অআ

  মন্তব্য করুন
AD by Deshkontho
AD by Deshkontho
আরও সংবাদ
×

আমাদের কথা: ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী অনলাইন মিডিয়া। গতি ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে মানুষও তথ্যানুসন্ধানে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে অনলাইন। যতই দিন যাচ্ছে, অনলাইন মিডিয়ার সঙ্গে মানুষের সর্ম্পক তত নিবিড় হচ্ছে। দেশ, রাষ্ট্র, সীমান্ত, স্থল-জল, আকাশপথ ছাড়িয়ে যেকোনো স্থান থেকে ‘অনলাইন মিডিয়া’ এখন আর আলাদা কিছু নয়। পৃথিবীর যে প্রান্তে যাই ঘটুক, তা আর অজানা থাকছে না। বলা যায় অনলাইন নেটওয়ার্ক এক অবিচ্ছিন্ন মিডিয়া ভুবন গড়ে তুলে এগিয়ে নিচ্ছে মানব সভ্যতার জয়যাত্রাকে। আমরা সেই পথের সারথি হতে চাই। ‘দেশকণ্ঠ’ সংবাদ পরিবেশনে পেশাদারিত্বকে সমধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে বদ্ধপরির। আমাদের সংবাদের প্রধান ফোকাস পয়েন্ট সারাবিশ্বের বাঙালির যাপিত জীবনের চালচিত্র। বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলের সংবাদও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা একঝাক ঋদ্ধ মিডিয়া প্রতিনিধি যুক্ত থাকছি দেশকণ্ঠের সঙ্গে।