• সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮  নিউইয়র্ক সময়: ১৯:৫৯    ঢাকা সময়: ০৫:৫৯

এক মাসের মধ্যে আরেকটি বৃহত্তম হীরার সন্ধান বতসোয়ানায়

দেশকণ্ঠ প্রতিবেদন :  বতসোয়ানায় একের পর এক বৃহৎ হীরা উত্তোলন করে তাক লাগিয়ে দিচ্ছে বিশ্বকে। এক মাসের মধ্যেই দুইটি মূল্যবান বড় হীরা উত্তোলন করে সংশ্লিষ্টরা। বুধবার কানাডিয়ান মাইনিং কোম্পানি লুকারা হীরার কথা জানায়। গত ১২ জুন বতসোয়ার একটি খনি থেকে উদ্ধার করা হয়। দেশটির রাজধানী গ্যাবোরোনে দেশটির মন্ত্রিপরিষদে হীরাটি তুলে ধরা হয়েছে।
 
লুকারার কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাসিম লাহড়ি বলেন, বিশ্বের বৃহত্তম হীরাগুলোর মধ্যে আকৃতির দিক দিয়ে এটি তৃতীয়। হীরাটি উত্তোলন করতে পারা বতসোয়ানা ও তাদের প্রতিষ্ঠানের জন্য ইতিহাস। এ ঘটনায় স্বাগত জানিয়েছেন আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট। বৃহৎ হীরার জন্য ১০টি দেশের মধ্যে বতসোয়ানা বিশ্বের ৬ নম্বরে রয়েছে।
 
গত মাসেই বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম হীরা আবিষ্কারের ঘোষণা দেয় বতসোয়ানা। দেশটির মাইনিং কোম্পানি ডেবসওয়ানা এক হাজার ৯৮ ক্যারেটের হীরা উত্তোলনের কথা জানায়।
 
১৯০৫ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় ৩ হাজার একশ ছয় ক্যারেটের কুলিনান হীরা আবিষ্কার হয়। যা এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় হীরা হিসেবেই পরিচিত। দ্বিতীয়টি ২০১৫ সালে বতসোয়ানার উত্তর-পূর্বাঞ্চলের কারওয়েতে থেকে আবিষ্কার করা যায়। লেসেডি লা রোনা নামের ওই ডায়মন্ড ছিল এক হাজার একশ'নয় ক্যারেটের। আফ্রিকায় হীরা আবিষ্কারের মধ্যে অন্যতম বতসোয়ানা।
দেশকণ্ঠ/অআ

  মন্তব্য করুন
AD by Deshkontho
AD by Deshkontho
×

আমাদের কথা: ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী অনলাইন মিডিয়া। গতি ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে মানুষও তথ্যানুসন্ধানে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে অনলাইন। যতই দিন যাচ্ছে, অনলাইন মিডিয়ার সঙ্গে মানুষের সর্ম্পক তত নিবিড় হচ্ছে। দেশ, রাষ্ট্র, সীমান্ত, স্থল-জল, আকাশপথ ছাড়িয়ে যেকোনো স্থান থেকে ‘অনলাইন মিডিয়া’ এখন আর আলাদা কিছু নয়। পৃথিবীর যে প্রান্তে যাই ঘটুক, তা আর অজানা থাকছে না। বলা যায় অনলাইন নেটওয়ার্ক এক অবিচ্ছিন্ন মিডিয়া ভুবন গড়ে তুলে এগিয়ে নিচ্ছে মানব সভ্যতার জয়যাত্রাকে। আমরা সেই পথের সারথি হতে চাই। ‘দেশকণ্ঠ’ সংবাদ পরিবেশনে পেশাদারিত্বকে সমধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে বদ্ধপরির। আমাদের সংবাদের প্রধান ফোকাস পয়েন্ট সারাবিশ্বের বাঙালির যাপিত জীবনের চালচিত্র। বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলের সংবাদও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা একঝাক ঋদ্ধ মিডিয়া প্রতিনিধি যুক্ত থাকছি দেশকণ্ঠের সঙ্গে।