• সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮  নিউইয়র্ক সময়: ২১:৫০    ঢাকা সময়: ০৭:৫০

মীমের প্রথম পারিশ্রমিক ও সাইকেল চালানোর গল্প

দেশকণ্ঠ প্রতিবেদন :  মীমের ক্যারিয়ারে পারিশ্রমিক বা সম্মানীর খাতাটা খোলে সে নাটকের মাধ্যমেই। এতে অভিনয়ের জন্য পাঁচ হাজার টাকা পেয়েছিলেন তিনি। মীম এখন সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকপ্রাপ্তদের মধ্যে অন্যতম হলেও ১৪ বছর আগে পাওয়া প্রথম সম্মানীর খামটি আজও সযত্নে রেখে দিয়েছেন নিজের কাছে। 
 
সম্প্রতি মাছরাঙা টেলিভিশনের ঈদের বিশেষ ‘রাঙা সকাল’-এ সে কথাই শেয়ার করলেন। ক্যারিয়ারের এ পর্যায়ে মীম এখন অভিনয়ের দিকেই গুরুত্ব দিচ্ছেন। চরিত্র ভালো লাগার কারণে ‘নট হার ফল্ট’ স্বল্পদৈর্ঘ্যে বিনা পারিশ্রমিকেও কাজ করেছেন। ‘সাপলুডু’, ‘পরাণ’, ‘দামাল’, ‘ইত্তেফাক’, ‘অন্তর্জাল’-সহ সাম্প্রতিককালে চুক্তিবদ্ধ হওয়া সিনেমাগুলোতে নায়িকা মীমের চেয়ে অভিনেত্রী মীমকে পাওয়া যাবে বলে জানান এই তারকা।
তবে ক্যারিয়ারের শুরুতে এমন ভাবনা তার ছিলনা। মীম বলেন, ‘‘অনেকের ধারণা শোবিজে আমার যাত্রা অনেকটা এলাম-দেখলাম-জয় করলামের মতো। তবে শুরুর দিকে আমাকেও অনেক সংগ্রাম করতে হয়েছে। লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার-এর বিজয়ী হবার আগে মায়ের সহযোগিতায় দুই বছর মিডিয়াতে কাজ করার জন্য চেষ্টা করেছিলাম। এমনকি একটি নাটকে অভিনেতা জাহিদ হাসানের বোনের চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাবও পেয়েছিলাম। তবে তখন থেকেই নিশ্চিত ছিলাম, যদি অভিনয় করতেই হয় প্রধান বা নায়িকা চরিত্রে অভিনয় করবো। কাকতালীয়ভাবে, আমি আমার প্রথম চলচ্চিত্র ‘আমার আছে জল’-এর অন্যতম নায়ক হিসেবে জাহিদ হাসানকেই পেয়েছিলাম।’’ 
 
জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী মীম আরও বলেন, ‘‘শুধু চলচ্চিত্রেই নয়, টিভি নাটকে অভিনয় করার জন্যও সর্বোচ্চ শ্রম আর আন্তরিকতা দিয়ে কাজ করেছি সবসময়।’  উদাহরণ হিসেবে মীম জানান, মাহফুজ আহমেদের পরিচালনায় ‘শেষের কবিতার পরের কবিতা’ নাটকে অভিনয়ের জন্য সাইকেল চালানো শিখেছিলেন তিনি। কুমিল্লায় মাঝ রাস্তায় সাইকেল প্রশিক্ষণ নিতে গিয়ে মৃত্যুর মুখ থেকেও ফিরে এসেছিলেন তখন। 
 
মীমের জীবনের গল্প নিয়ে ‘রাঙা সকাল’-এর বিশেষ এই পর্বটি সঞ্চালনা করেছেন রুম্মান রশীদ খান ও নন্দিতা। জোবায়ের ইকবালের প্রযোজনায় বিশেষ এই পর্বটি প্রচার হবে ঈদের ৩য় দিন (২৩ জুলাই), সকাল ৭টায়, মাছরাঙা টেলিভিশনে।
দেশকণ্ঠ/অআ

  মন্তব্য করুন
AD by Deshkontho
AD by Deshkontho
×

আমাদের কথা: ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী অনলাইন মিডিয়া। গতি ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে মানুষও তথ্যানুসন্ধানে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে অনলাইন। যতই দিন যাচ্ছে, অনলাইন মিডিয়ার সঙ্গে মানুষের সর্ম্পক তত নিবিড় হচ্ছে। দেশ, রাষ্ট্র, সীমান্ত, স্থল-জল, আকাশপথ ছাড়িয়ে যেকোনো স্থান থেকে ‘অনলাইন মিডিয়া’ এখন আর আলাদা কিছু নয়। পৃথিবীর যে প্রান্তে যাই ঘটুক, তা আর অজানা থাকছে না। বলা যায় অনলাইন নেটওয়ার্ক এক অবিচ্ছিন্ন মিডিয়া ভুবন গড়ে তুলে এগিয়ে নিচ্ছে মানব সভ্যতার জয়যাত্রাকে। আমরা সেই পথের সারথি হতে চাই। ‘দেশকণ্ঠ’ সংবাদ পরিবেশনে পেশাদারিত্বকে সমধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে বদ্ধপরির। আমাদের সংবাদের প্রধান ফোকাস পয়েন্ট সারাবিশ্বের বাঙালির যাপিত জীবনের চালচিত্র। বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলের সংবাদও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা একঝাক ঋদ্ধ মিডিয়া প্রতিনিধি যুক্ত থাকছি দেশকণ্ঠের সঙ্গে।