• সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮  নিউইয়র্ক সময়: ২১:৫২    ঢাকা সময়: ০৭:৫২

খুলনার নৌপথে আটকা ৪৭ হাজার মেট্রিক টন আমদানি চাল

দেশকণ্ঠ প্রতিবেদন :  বাজার মূল্য স্থিতিশীল রাখতে সরকার ভারত থেকে চাল আমদানি করছে। খুলনার নৌ পথের ঘাটে ঘাটে আমদানি করা সরকারী এ চালবাহী কার্গো জট লেগে আছে। বর্তমানে জটে আটকা পড়ে আছে ৩৫টি কার্গো। আর এ কার্গোগুলোতে রয়েছে ৪৭ হাজার মেট্রিক টন চাল। দুঃস্থদের মাঝে বিতরণ, ভিজিএফ, ওএমএস’র জন্য এ চাল আমদানি করা হয়েছে। যা দেশের ৬ বিভাগের গুদামগুলোতে চাল সরবরাহ করা হবে। 
 
খাদ্য বিভাগের (চলাচল ও সংরক্ষণ নিয়ন্ত্রক) খুলনা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-নিয়ন্ত্রক বাদল চন্দ্র বিশ্বাস জানান, ভারত থেকে চাল নিয়ে ধারাবাহিকভাবে মোংলা বন্দরে জাহাজ আসা ও কার্গোতে খালাস হয়। এ অবস্থায় লকডাউনের কারণে নির্ধারিত সময়ে এ চাল বিভিন্ন গুদামে পাঠানো সম্ভব হয়নি। ফলে জট পড়েছে।  তিনি জানান, আরও দু’লাখ মেট্টিক টন চাল খুলনা নদ-নদী বন্দরে আসবে।
 
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ভারত থেকে ২ লাখ ৪৩ হাজার মেট্টিক টন চাল আমদানির জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়। চলতি বছরের  জানুয়ারী থেকে জুন মাস পর্যন্ত মোংলা বন্দর ও খুলনার নদ-নদী বন্দরে ১ লাখ ৯৩ হাজার মেট্টিক টন চাল এসেছে। এর মধ্যে ৩৫টি কার্গোতে ৪৭ হাজার টন মেট্টিক টন চাল খুলনার ৩টি নৌ ঘাটে খালাসের অপেক্ষায় রয়েছে। ৪নং ঘাটে ১৬টি কার্গো, ৭নং ঘাটে ৭টি ও মহেশ্বরপাশা ঘাটে ২৪টি কার্গো রয়েছে। এ চাল ঈদ উপলক্ষে দুঃস্থ, অসহায় পরিবার, ভিজিএফ, ওএমএস, ভিজিএফ জেলেদের এক কোটি পরিবারের জন্য এবং আনসার, জেলখানা, পুলিশ, বিজিবি ও ফায়ার ব্রিগেডের জন্য আনা হয়। এসব চাল ঢাকা, ময়মনসিংহ, রংপুর, রাজশাহী, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের বিভিন্ন গুদামে পাঠানো হবে।
 
৪নং ঘাটে রাজু এন্ড তুহিন নেভিগেশনের চালক আব্দুস সালাম জানান, ইয়াস নামক ঘূর্ণিঝড়ের দু’দিন পরে ২৯ হাজার ৪শ ব্যাগ চাল বোঝাই করে তারা কলকাতা বন্দর ত্যাগ করেন। মোংলা ও ৪নং ঘাটে এক মাস বিলম্ব হয়েছে।১৫ জুলাই থেকে চাল খালাস শুরু হয়। চাল খালাস হতে ঈদ পার হয়ে আরও এক সপ্তাহ সময় লাগবে। ৪নং ঘাটের সহকারী খাদ্য নিয়ন্ত্রক মনিরুল ইসলাম জানান, জুলাইয়ের শুরু থেকে অতিবৃষ্টি, শ্রমিক সংকট, ঠিকাদারের অনুপস্থিতি, ট্রাক সংকট ইত্যাদি কারণে ঘাটে কার্গোর চাল খালাস করা সম্ভব হয়নি।
দেশকণ্ঠ/অআ

  মন্তব্য করুন
AD by Deshkontho
AD by Deshkontho
আরও সংবাদ
×

আমাদের কথা: ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী অনলাইন মিডিয়া। গতি ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে মানুষও তথ্যানুসন্ধানে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে অনলাইন। যতই দিন যাচ্ছে, অনলাইন মিডিয়ার সঙ্গে মানুষের সর্ম্পক তত নিবিড় হচ্ছে। দেশ, রাষ্ট্র, সীমান্ত, স্থল-জল, আকাশপথ ছাড়িয়ে যেকোনো স্থান থেকে ‘অনলাইন মিডিয়া’ এখন আর আলাদা কিছু নয়। পৃথিবীর যে প্রান্তে যাই ঘটুক, তা আর অজানা থাকছে না। বলা যায় অনলাইন নেটওয়ার্ক এক অবিচ্ছিন্ন মিডিয়া ভুবন গড়ে তুলে এগিয়ে নিচ্ছে মানব সভ্যতার জয়যাত্রাকে। আমরা সেই পথের সারথি হতে চাই। ‘দেশকণ্ঠ’ সংবাদ পরিবেশনে পেশাদারিত্বকে সমধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে বদ্ধপরির। আমাদের সংবাদের প্রধান ফোকাস পয়েন্ট সারাবিশ্বের বাঙালির যাপিত জীবনের চালচিত্র। বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলের সংবাদও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা একঝাক ঋদ্ধ মিডিয়া প্রতিনিধি যুক্ত থাকছি দেশকণ্ঠের সঙ্গে।