• শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২ আশ্বিন ১৪২৮  নিউইয়র্ক সময়: ০৮:৩২    ঢাকা সময়: ১৮:৩২

রান্নার গ্যাস সাশ্রয়ের কিছু সহজ উপায়

দেশকণ্ঠ প্রতিবেদন : রান্নার গ্যাসের দাম দিন দিন ঊর্ধ্বমুখী। বুধবার আবার ২৫ টাকা বাড়ানো হল এলপিজি-র দাম। অর্থাৎ, মধ্যবিত্তের পকেটে টান। তার উপর বাড়ি থেকে কাজের জমানায় ঘন ঘন হাত বাড়াতে হচ্ছে চা-জলখাবারের দিকে। ফলে মাস শেষ হওয়ার আগেই ফুরিয়ে যাচ্ছে গ্যাস।  কয়েকটি সহজ উপায়ে রান্নার গ্যাস সাশ্রয়করার উপায়-
 
১) নিয়মিত নজর রাখুন পাইপ, রেগুলেটর বা বার্নারে কোনও লিক হচ্ছে কিনা। ছোটখাটো লিকও যদি চোখ এড়িয়ে যায়, তাহলে পরে বিপদে পড়বেন আপনি।
 
২) অল্প আঁচে রান্না করুন। গ্যাস বাড়িয়ে রান্না করলে জ্বালানি যেমন ফুরোবে তাড়াতাড়ি, তেমন খাবারের উপকারি এনজাইম ও ভিটামিনও নষ্ট হয়ে যাবে। কম আঁচে রান্না করলে পকেট এবং স্বাস্থ্য, দুয়ের জন্যই ভাল।
 
৩) অনেক রান্নার ক্ষেত্রেই আগে একটি পাত্রে পানি ফুটিয়ে নিতে হয়।  তার পর ফ্লাস্কে রেখে দিন। রান্নার সময়ে দিব্যি ব্যবহার করা যাবে সেই গরম পানি।
 
৪) যখন যা-ই রান্না করবেন, ঢাকা দিয়ে করুন। ভাপে রান্না তাড়াতাড়ি হয়। ফলে একই পদ তৈরি হতে কম সময় লাগে। কম গ্যাস পুড়বে।
 
৫) রান্না করার সময়ে অনেক ক্ষেত্রেই আমরা চট করে হাতের কাছে খুঁজে পাই না প্রয়োজনীয় উপকরণ। কখনও খুঁজতে হয় হলুদ গুঁড়ো, তো কখনও খুঁজতে হয় আগে থেকে বেটে রাখা পোস্ত। এতে অনেকটা সময় চলে যায়। তাই গ্যাসও শেষ হয় তাড়াতাড়ি। এবার থেকে আগেই হাতের কাছে গুছিয়ে রাখুন প্রয়োজনীয় উপকরণ।
 
৬) প্রেশার কুকারের ব্যবহার বাড়ান। রান্না হবে‌ তাড়াতাড়ি। গ্যাসের পিছনে অর্থদণ্ড কমবে।
 
৭) ফ্রিজ থেকে শাক-সব্জি বার করেই আমরা সোজা তা রান্নায় দিয়ে দিই। কিন্তু ঠান্ডা থাকার কারণে তা সিদ্ধ হতে অনেক বেশি সময় লাগে। তাই রান্নার ৩-৪ ঘণ্টা আগে ফ্রিজে থেকে বার করে রাখুন শাক-সব্জি।
 
৮) যদি দেখেন যে বার্নার থেকে হলুদ বা কমলা রঙের শিখা বেরোচ্ছে, তাহলে বুঝতে হবে যে তাতে সামান্য কার্বন জমা হয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে পরিষ্কার করে নিন। আপনার জ্বালানির সাশ্রয় হবে।
 
৯) তামা বা স্টেনলেস স্টিলের পাত্র বেশি ব্যবহার করুন। তাতে রান্না তাড়াতাড়ি হবে। গ্যাস কম পুড়বে।
দেশকণ্ঠ/ আসো

  মন্তব্য করুন
AD by Deshkontho
AD by Deshkontho
আরও সংবাদ
×

আমাদের কথা: ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী অনলাইন মিডিয়া। গতি ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে মানুষও তথ্যানুসন্ধানে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে অনলাইন। যতই দিন যাচ্ছে, অনলাইন মিডিয়ার সঙ্গে মানুষের সর্ম্পক তত নিবিড় হচ্ছে। দেশ, রাষ্ট্র, সীমান্ত, স্থল-জল, আকাশপথ ছাড়িয়ে যেকোনো স্থান থেকে ‘অনলাইন মিডিয়া’ এখন আর আলাদা কিছু নয়। পৃথিবীর যে প্রান্তে যাই ঘটুক, তা আর অজানা থাকছে না। বলা যায় অনলাইন নেটওয়ার্ক এক অবিচ্ছিন্ন মিডিয়া ভুবন গড়ে তুলে এগিয়ে নিচ্ছে মানব সভ্যতার জয়যাত্রাকে। আমরা সেই পথের সারথি হতে চাই। ‘দেশকণ্ঠ’ সংবাদ পরিবেশনে পেশাদারিত্বকে সমধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে বদ্ধপরির। আমাদের সংবাদের প্রধান ফোকাস পয়েন্ট সারাবিশ্বের বাঙালির যাপিত জীবনের চালচিত্র। বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলের সংবাদও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা একঝাক ঋদ্ধ মিডিয়া প্রতিনিধি যুক্ত থাকছি দেশকণ্ঠের সঙ্গে।