• শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২ আশ্বিন ১৪২৮  নিউইয়র্ক সময়: ০৮:৫৫    ঢাকা সময়: ১৮:৫৫

চুলের বৃ‌দ্ধিতে যোগাসান

  • মতামত       
  • ০৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১       
  • ১১১

নারী পুরুষ সক‌লের সৌন্দর্য বৃ‌দ্ধি‌তে সাধারণ একটি বিষয় হ‌লো ঘন কা‌লো সুন্দর চুল। এই ঘন কালো চুল কার না পছন্দ। নারী‌র চুলের বন্দনা যুগে যুগে ক‌বি-লেখ‌কদের লেখ‌নিতে ফুটে উঠেছে। ক‌বি তার ক‌বিতার ছ‌ন্দে নারীর চুলের সৌন্দ‌র্যের বর্ণনা করেছেন। জীবনানন্দ দাস বিখ্যাত বনলতা সেন কবিতায় লিখেছেন, ‘চুল তার কবে কার অন্ধকার বিদিশার নিশা’। কবি অকবি বলে কথা নেই, যখন কো‌নো কারণবশতঃ বা কখনো কখনো কারণ ছাড়াই চুল ঝরে পরে, তখন নারী প‌ুরুষ নি‌র্বি‌শে‌ষে সবার চো‌খের ঘুম হারাম হয়ে যায়। কিভাবে চুল ঝরে পরা কমা‌নো যায়, চুলের বৃ‌দ্ধি বাড়ানো যায়— তা নিয়ে চলে কত শত পরীক্ষা-নি‌রিক্ষা। আর এইসব ভুক্তভোগীদের আরো বিব্রত করতে, কোনো ক্ষেত্রে অর্থ হাতিয়ে নিতে রয়েছে বি‌ভিন্ন প‌ণ্যের চটকদার বিজ্ঞাপন। তবে বিজ্ঞাপণের সেই সব প‌ণ্য ঝরে পরা বা চুলের বৃ‌দ্ধিতে কার্যকর তা ব্যবহারকারীরাই ভালো বলতে পারবেন। আর তাই  আজ আমরা আলোচনা করব যোগাস‌নের মাধ্যমে আমরা কিভা‌বে আমা‌দের চু‌লের বৃ‌দ্ধি ঘটা‌তে পা‌রি। চুল আরো বাহারী, মজবুত করার পাশাপাশি ঝরে পড়া কিভাবে রোধ করা যায় তাই জানাচ্ছেন ইয়োগা বিশেষজ্ঞ শাহনাজ পারভীন শিখা


প্রথ‌মে আমরা জা‌নি চুল কেন ঝ‌রে প‌রে। বি‌ভিন্ন কার‌ণে আমা‌দের চুল প‌রে যেতে পা‌রে। যেমন হর‌মোনাল সমস্যা, মান‌সিক চাপ, প্রো‌টিন, ক্যাল‌সিয়াম, ভিটা‌মিন ডি-৩ কিংবা আয়রনের অভাব। আর স‌র্বোপ‌রি আমা‌দের বর্তমান জীবনধারা। পর্যপ্ত ঘু‌মের অভাব, অস্বাস্থ্যকর খাবার এবং অপরিকল্পিত ডা‌য়েট। প্রো‌টিন, ক্যাল‌সিয়াম, ভিটা‌মিন ও আয়র‌নের অভাব আমরা স‌ঠিক খাদ্যাভ্যা‌সের মাধ্য‌মে পূরন কর‌তে পারব। হর‌মো‌নের সমস্যা ও চু‌লের ঝ‌রে পরা রোধ বা চু‌লের বৃ‌দ্ধির জন্য আমা‌দের প্র‌য়োজন স‌ঠিক ও নিয়‌মিত যোগাভ্যা‌সের। প্র‌তি‌দিন যোগাভ্যা‌সের মাধ্য‌মে আমরা পে‌তে পা‌রি ঘন কা‌লো লম্বা চুল।
 
‌চু‌লের বৃ‌দ্ধির জন্য যোগাভ্যাসসমূহ
১. পদহস্তাসন, ২. অ‌ধঃমুখাসন, ৩. উষ্ট্রাসন, ৪. শশাঙ্গাসন, ৫. শীর্ষাসন, ৬. কপালভাতী ক্রিয়া ও ৭. অনু‌লোম বি‌লোম প্রণায়াম। এখন আ‌সা যাক কিভা‌বে এবং কখন আমরা এই আসন ও প্রাণায়ামগু‌লো করব।
 
যোগাসন করার পূর্বশর্ত হ‌লো খা‌লি পেটে যোগাভ্যাস কর‌তে হ‌বে। তাই সব‌চে‌য়ে ভাল হয় ভোর‌বেলা খা‌লি পে‌টে বা দুপুরে খাওয়ার ৩\৪ ঘণ্টা পর যোগাভ্যাস করা।
 
কিভাবে যোগাসনগগুলো করব—
 
 
পদহস্তাসন :  প্রথ‌মে দুই পা জোড়া ক‌রে দাড়াব। লম্বা এবং গভীর শ্বাস নিতে নিতে দুই হাত দুই পাশ থে‌কে মাথা‌র উপ‌রে তু‌লে নিব।এরপর ধী‌রে ধী‌রে শ্বাস ছাড়‌তে ছাড়‌তে;‌ কোমার থে‌কে ধী‌রে ধী‌রে সাম‌নের দি‌কে ঝুক‌বো। দুই হাত দি‌য়ে দুই পা ধরব আর চেষ্টা করব কপাল‌কে হাঁটু‌তে লাগা‌তে। প্রথ‌মে আমরা কপাল হাঁটু‌তে লাগা‌তে না পার‌লে দুই হাত মা‌টি‌তে রে‌খে যতটুকু সম্ভব সাম‌নের দি‌কে ঝুক‌বো। কিছুক্ষণ এইভা‌বে থাক‌বো। এরপর শ্বাস নি‌তে নি‌তে ধী‌রে ধী‌রে সোজা হ‌য়ে দাঁড়াব।এই  আস‌নে সাম‌নের দি‌কে ঝোকার ফ‌লে আমা‌দের রক্ত সঞ্চালনটা মাথার দি‌কে উঠে আসে। আমা‌দে‌র মাথায় রক্ত সঞ্চালন বে‌ড়ে যায়, যা আমা‌দের চু‌ল পরা রোধ কর‌তে এবং চু‌লের বৃ‌দ্ধি‌তে খুবই কার্যকর ভূ‌মিকা রা‌খে।
 
 
অ‌ধঃমুখাসন : প্রথ‌মে আমরা উপুর হ‌য়ে শু‌য়ে পড়ব। দুই হাত বু‌কের দুই পা‌শে রাখব। ধী‌রে ধী‌রে শ্বাস নি‌য়ে হাত ও পা‌য়ের উপর ভর ক‌রে উঠ‌বো। এরপর শ্বাস ছাড়‌তে ছাড়‌তে মাথাকে পে‌টের দিকে ঢু‌কি‌য়ে দিব। এইভা‌বে কিছুক্ষণ থাকব। আস‌নে গি‌য়ে স্বাভা‌বিক শ্বাস প্রশ্বাস চল‌বে। ধী‌রে ধী‌রে শ্বাস নি‌তে নি‌তে শুয়ে পড়ব।এই  আস‌নেও আমা‌দের মাথা নি‌চের দি‌কে আ‌সে তাই আমা‌দে‌র রক্তসঞ্চালন মাথার দি‌কে হয়। যা আমা‌দের চু‌লের বৃ‌দ্ধি‌তে সহায়ক।
 
 
উষ্ট্রাসন : প্রথ‌মে আমরা বজ্রাস‌নে বসব। এরপর দুই হাঁটু‌তে দাঁড়াব। হাত দু‌টো কোম‌ড়ে রাখব। ধী‌রে ধী‌রে শ্বাস নি‌তে নি‌তে মাথা পেছনে ঝুকবো আর সা‌থে কোমড়কে সাম‌নের দি‌কে ঠেল‌ব। দাঁতগু‌লো একসা‌থে  রাখব। বুকটা‌কে যতটা সম্ভব সম্প্রসা‌রিত করব। চেষ্টা করব হাত দু‌টো পা‌য়ের পাতাতে রাখতে। এইভা‌বে কিছুক্ষণ থাকব। স্বাভা‌বিক শ্বাস নি‌ব আর ছাড়বে। এরপর ধীরে ধী‌রে শ্বাস নিতে নিতে ফেরত আসব। এই  আসন‌টি আমাদের চুলের বৃ‌দ্ধির সা‌থে সা‌থে থাই‌র‌য়ে‌ডের সমস্যা দূর ক‌রে। ফুসফু‌সের জন্য ও খুব ভাল এই  আসন‌টি।
[বাকি আসনগুলো নিয়ে পরের পর্বে আলোচনা করা হবে]
 দেশকণ্ঠ/আসো

  মন্তব্য করুন
AD by Deshkontho
AD by Deshkontho
আরও সংবাদ
×

আমাদের কথা: ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী অনলাইন মিডিয়া। গতি ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে মানুষও তথ্যানুসন্ধানে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে অনলাইন। যতই দিন যাচ্ছে, অনলাইন মিডিয়ার সঙ্গে মানুষের সর্ম্পক তত নিবিড় হচ্ছে। দেশ, রাষ্ট্র, সীমান্ত, স্থল-জল, আকাশপথ ছাড়িয়ে যেকোনো স্থান থেকে ‘অনলাইন মিডিয়া’ এখন আর আলাদা কিছু নয়। পৃথিবীর যে প্রান্তে যাই ঘটুক, তা আর অজানা থাকছে না। বলা যায় অনলাইন নেটওয়ার্ক এক অবিচ্ছিন্ন মিডিয়া ভুবন গড়ে তুলে এগিয়ে নিচ্ছে মানব সভ্যতার জয়যাত্রাকে। আমরা সেই পথের সারথি হতে চাই। ‘দেশকণ্ঠ’ সংবাদ পরিবেশনে পেশাদারিত্বকে সমধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে বদ্ধপরির। আমাদের সংবাদের প্রধান ফোকাস পয়েন্ট সারাবিশ্বের বাঙালির যাপিত জীবনের চালচিত্র। বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলের সংবাদও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা একঝাক ঋদ্ধ মিডিয়া প্রতিনিধি যুক্ত থাকছি দেশকণ্ঠের সঙ্গে।