• মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  নিউইয়র্ক সময়: ১৮:৫২    ঢাকা সময়: ০৪:৫২

বাংলাদেশে একজন ডেঙ্গু রোগীর চিকিৎসার গড় ব্যয় ৩৪ হাজার টাকা

দেশকণ্ঠ প্রতিবেদন : বছর শেষ হতে চললেও বাংলাদেশ জুড়ে এখনও ডেঙ্গুর সংক্রমণ অব্যাহত রয়েছে এবং সরকারি হিসেবে বছরের প্রথম থেকে এ পর্যন্ত দেশে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ২৬ হাজার ছাড়িয়েছে এবং মৃত্যু হয়েছে ৯৮ জনের। বৃহস্পতিবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ডেঙ্গু রোগীর এই সংখ্যা এবং মৃত্যুর এ খবর জানিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলেছে দেশের বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি হাসপাতালে বর্তমানে ৫৫৫ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি আছেন এবং বাকিরা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এই হিসাবে শুধু যে সকল ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি। যে সকল ডেঙ্গু রোগী বাড়িতে চিকিৎসা নিয়েছেন কিংবা নিচ্ছেন তার কোন পরিসংখ্যান জানা যায় নাই।
 
২০১৯ সালে সরকারি হিসামে লক্ষাধিক লোক বাংলাদেশে ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর এ বছরেই সবচেয়ে বেশী সংখ্যক মানুষ এ রোগে সংক্রমিত হলেন। বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ (বিআইডিএস) ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসা ব্যয় নিয়ে এক গবেষণায় বলেছে একজন ডেঙ্গু রোগীর চিকিৎসার জন্য গড়ে প্রায় ৩৪ হাজার টাকা খরচ হচ্ছে। বিআইডিএস এর রিসার্চ ফেলো ড. আবদুর রাজ্জাক সরকারের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত এই গবেষণায় বলা হয়েছে গত দুই বছরে ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসার ব্যয় কমেনি বরং ৫ থেকে ১০ শতাংশ বেড়েছে। পেছনে সরকারী হাসপাতালে খরচ হচ্ছে গড়ে ২২ হাজার ৩৭৯ টাকা এবং বেসরকারি হাসপাতালে খরচ হচ্ছে গড়ে ৪৭ হাজার ২৩০ টাকা। এতে বলা হয়েছে দেশের দরিদ্র পরিবারগুলোকে ডেঙ্গু রোগীদের জন্য তাঁদের মোট আয়ের ৩৯ শতাংশ পর্যন্ত চিকিৎসায় খরচ করতে হচ্ছে।
 
ড. আবদুর রাজ্জাক জানিয়েছেন এই গবেষণার মূল লক্ষ্য ছিল ২০১৯ সালে ঢাকায় ডেঙ্গু মহামারি ও এর অর্থনৈতিক প্রভাব সম্পর্কে একটি অনুমান করা। তিনি বলে এ লক্ষ্য অর্জনে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এর মোট ১১৭৬ টি ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের উপর জরিপ চালানো হয়। ২০১৯ সালে এই এলাকার মানুষের মধ্যে ডেঙ্গুর গড় বিস্তার ছিল প্রায় ১.৮৭ শতাংশ বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন ডেঙ্গুর কারণে মানুষ আর্থিক দিক দিয়ে কতটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তারই একটা রূপরেখা তুলে ধরতে বিআইডিএস ২০২০ সালের ১৫ই অক্টোবর থেকে ২৮শে নভেম্বর পর্যন্ত এ সকল পরিবারের কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করেছে এবং তার ভিত্তিতেই গবেষণার ফলাফল নির্ধারণ করা হয়েছে।
 
বিআইডিএস মহাপরিচালক ড. বিনায়ক সেন বলেছেন বাংলাদেশে হাসপাতালগুলোতে সেবার মান নিশ্চিতের ক্ষেত্রে সকল হাসপাতালে সরকার নির্ধারিত একটি মূল্য বেধে দিলে মানুষ বাড়তি হয়রানি থেকে বাঁচবে। তিনি আরও বলেন দেশের শহরাঞ্চলের স্বাস্থ্যসেবার বড় সমস্যা হচ্ছে সমন্বয়ের অভাব।
দেশকণ্ঠ/আসো

  মন্তব্য করুন
AD by Deshkontho
AD by Deshkontho
আরও সংবাদ
×

আমাদের কথা: ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী অনলাইন মিডিয়া। গতি ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে মানুষও তথ্যানুসন্ধানে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে অনলাইন। যতই দিন যাচ্ছে, অনলাইন মিডিয়ার সঙ্গে মানুষের সর্ম্পক তত নিবিড় হচ্ছে। দেশ, রাষ্ট্র, সীমান্ত, স্থল-জল, আকাশপথ ছাড়িয়ে যেকোনো স্থান থেকে ‘অনলাইন মিডিয়া’ এখন আর আলাদা কিছু নয়। পৃথিবীর যে প্রান্তে যাই ঘটুক, তা আর অজানা থাকছে না। বলা যায় অনলাইন নেটওয়ার্ক এক অবিচ্ছিন্ন মিডিয়া ভুবন গড়ে তুলে এগিয়ে নিচ্ছে মানব সভ্যতার জয়যাত্রাকে। আমরা সেই পথের সারথি হতে চাই। ‘দেশকণ্ঠ’ সংবাদ পরিবেশনে পেশাদারিত্বকে সমধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে বদ্ধপরির। আমাদের সংবাদের প্রধান ফোকাস পয়েন্ট সারাবিশ্বের বাঙালির যাপিত জীবনের চালচিত্র। বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলের সংবাদও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা একঝাক ঋদ্ধ মিডিয়া প্রতিনিধি যুক্ত থাকছি দেশকণ্ঠের সঙ্গে।