• মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  নিউইয়র্ক সময়: ১৮:৩২    ঢাকা সময়: ০৪:৩২

পাহাড়ে ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর বসবাসে ঝুঁকিতে বন্যপ্রাণীরা

  • মতামত       
  • ১৯ নভেম্বর, ২০২১       
  • ১২

দেশকণ্ঠ প্রতিবেদন : পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন মনে করেন, দেশে পাহাড়ের ভেতর খাসিয়াসহ বেশ কিছু ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর মানুষের বসবাসে বন্য পশুরা নিরাপদ নয়। ১৭ নভেম্বর সকালে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে আয়োজিত “বন্যপ্রাণীর অবৈধ বাণিজ্য দমনে আইন প্রয়োগ শক্তিশালী করার লক্ষ্যে পরামর্শ সভায়” এ কথা বলেন তিনি।
 
পরিবেশমন্ত্রী বলেন, “পাহাড়েও বন্য পশু নিরাপদ নয়। আমাদের খাসিয়া সম্প্রদায়ের অনেকে পাহাড়ে পান চাষ করে। আরও অনেকে আছে। তারা পাহাড়ের ভেতরে গিয়ে বসবাস করছে, যে কারণে বন্য পশু সেখানেও নিরাপদ নয়। এসব কারণ আমাদের চিহ্নিত করতে হবে। বনকে সুরক্ষা করতে হবে। তাহলে বন্যপ্রাণীকেও আমরা সুরক্ষা দিতে পারব।” তিনি আরও বলেন, “একটি বাঘকে হত্যার পর সেটার চামড়া, নখ, দাঁত এসব বিক্রি করতে না পারলে কেউ বাঘ হত্যা করবে না। পাচারকারী চক্র যত দিন তাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকবে, তত দিনই তারা অনুপ্রাণিত হবে এসব অপকর্ম করতে।”
 
মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোস্তফা কামাল বলেন, “পাহাড়ে জুমচাষের জন্য আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। যেখানে বন্যপ্রাণী বাস করে, সেখানে পুড়িয়ে চাষ করার তো দরকার নেই। বান্দরবানের একটা কলেজ থেকে প্রস্তাব দিয়েছে, পরিবেশ উন্নয়নের অংশ হিসেবে পাহাড় কেটে তারা সেখানে স্ট্যাচু বানাবে। পাহাড় কেটে তো পরিবেশের উন্নয়ন হতে পারে না।”
 
বন অধিদপ্তরের প্রধান বন সংরক্ষক মো. আমির হোসেন চৌধুরী বলেন, “বন্যপ্রাণী পাচার দু’ভাবে হয়। একটি আমাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়, অন্যটি আন্তর্জাতিক। আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশ থেকে বন্যপ্রাণী পাচার হয়। আবার বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী পাচারের একটি রুট হিসেবে ব্যবহৃত হয়। যখন রুট হিসেবে ব্যবহার হয়, তখন দেখা যায়, অন্য দেশ থেকে আসা বন্যপ্রাণী বাংলাদেশের মধ্য দিয়ে আমাদের পাশের কোনো দেশে চলে যায়।”
 
অবৈধ বন্যপ্রাণী-বাণিজ্য বন্ধে বাংলাদেশকে সহযোগিতা করে আসছে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াইল্ডলাইফ কনজারভেশন সোসাইটি (ডব্লিউসিএস)। অনুষ্ঠানে সংস্থাটির বাংলাদেশ প্রোগ্রামের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক এলিজাবেথ ফার্নি মনসুর অবৈধ বন্যপ্রাণী-বাণিজ্য বন্ধে বাংলাদেশকে সহযোগিতা অব্যাহত রাখার কথা জানান।
দেশকণ্ঠ/অআ

  মন্তব্য করুন
AD by Deshkontho
AD by Deshkontho
আরও সংবাদ
×

আমাদের কথা: ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী অনলাইন মিডিয়া। গতি ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে মানুষও তথ্যানুসন্ধানে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে অনলাইন। যতই দিন যাচ্ছে, অনলাইন মিডিয়ার সঙ্গে মানুষের সর্ম্পক তত নিবিড় হচ্ছে। দেশ, রাষ্ট্র, সীমান্ত, স্থল-জল, আকাশপথ ছাড়িয়ে যেকোনো স্থান থেকে ‘অনলাইন মিডিয়া’ এখন আর আলাদা কিছু নয়। পৃথিবীর যে প্রান্তে যাই ঘটুক, তা আর অজানা থাকছে না। বলা যায় অনলাইন নেটওয়ার্ক এক অবিচ্ছিন্ন মিডিয়া ভুবন গড়ে তুলে এগিয়ে নিচ্ছে মানব সভ্যতার জয়যাত্রাকে। আমরা সেই পথের সারথি হতে চাই। ‘দেশকণ্ঠ’ সংবাদ পরিবেশনে পেশাদারিত্বকে সমধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে বদ্ধপরির। আমাদের সংবাদের প্রধান ফোকাস পয়েন্ট সারাবিশ্বের বাঙালির যাপিত জীবনের চালচিত্র। বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলের সংবাদও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা একঝাক ঋদ্ধ মিডিয়া প্রতিনিধি যুক্ত থাকছি দেশকণ্ঠের সঙ্গে।